রিমন পালিত: বান্দরবান প্রতিনিধি : বান্দরবানে মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের উপর হামলা করা হয়েছে। সকালে বান্দরবান স্টেডিয়াম এলাকায় বসবাসরত এক মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের উপর ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্র কতৃক পরিকল্পিত এই নির্মম হামলা চালানো হয়। মুক্তিযুদ্ধা পরিবার এবং এলাকার জনসাধারন জানান দীর্ধ ৩ বছর যাবত মুক্তিযুদ্ধা পরিবার ইসলামী শিক্ষা কেন্দ্রের মালীকানাধীন ঘর ভাড়া করে উক্ত এলাকায় বসবাস করে আসিতেছে । গত ১৬ তারিখ আনুমানিক বিকাল ৪.৩০ ঘটিকায় ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্রের কিছু লোক পার্শ্ববর্তী ব্যক্তির গাছ কেটে জোড় পূর্বক মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের বসবাসরত ঘরের ভিতরে ফেলে রাখতে চেষ্টা করলে মুক্তিযুদ্ধা পরিবার তাদের এই অন্যায় কাজে বাধা দিলে অপরাধী ব্যাক্তিবর্গ তাদের উপর ক্ষিপ্ত হইয়া অম্লীল ভাষায় গালি দেওয়া শুরু করে এক পর্যায়ে মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের উপর মারধর শুরু করে তাদের জখম করে এবং ১৭ তারিখ সকাল ৮ ঘটিকায় ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্রে থেকে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে এসে ৩ জন মাদ্রাসা শিক্ষক দাড়িয়ে থেকে মুক্তি যুদ্ধা পরিবারের উপড় এই নির্মম হামলা চালায় । এই সময় এলাকার সাধারন জানসাধারন ও প্রশাসনের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। অপরাধীরা ঘটনা চলাকালীন লোহার রট ও লাঠি দিয়ে বীর মুক্তিযুদ্ধা মৃত মোহাম্মদ আবুল হোসনের পুএ মো: সেলিম(৩৩) স্ত্রী মাবিয়া বেগম (৩০) ও শ্বাশুরী অনোয়ারা বেগমের উপর নির্যাতন করে তাদের উপর মারধর করে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে তাদের সকল জিনিস পএ ভাংচুর করে লন্ড ভন্ড করে করে দেয়। আর এই মধ্যযুগিয় হামলার জগন্য কাজে সহযোগীতা কারী ইসলামী শিক্ষাকেন্দ্রের ৩ মাদ্রাসা শিক্ষক হলেন মো: হোসেন , মো:জামাল, মো: কামাল । মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের উপর হামলা করার শিক্ষা প্রদান করে প্রমান করে দিয়েছেন তারা দেশদ্রোহী রাজাকারের সমর্থক । পরে ঘটনার সত্যতা যাচাই করে তথ্য প্রমানের ভিক্তিতে প্রশানের পক্ষ থেকে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহন করা হয় এবং মুক্তিযুদ্ধা পরিবারের উপড় এই নির্মম হামলাম তীব্র নিন্ধা জানানো হয়।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: