তরিকুল ইসলাম জেন্টু,সান্তাহার (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সান্তাহারবাসীর কাঙ্কিত ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল উদ্বোধনের ১১ বছর পার হলেও চালু না হওয়ায় এলাকাবাসী তাদের চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। কবে নাগাদ হাসপাতাল চালু হবে তা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরবাসীর কাঙ্কিত ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল ২০০৫ সালে সি.এম.এম.ইউ এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে ও তত্ত্বাবধানে প্রায় ৩ কোটি ৩৩ লাখ ১২ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। এ হাসপাতালটি ৮০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর হঠাৎ করে বাঁকি অংশের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে কাজ রেখেই ২০০৬ সালের ২২ অক্টোবর ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে হাসপাতালটি উদ্বোধন করা হয়। বর্তমানে হাসপাতালটির তদারকির দায়িত্বে কেউ না থাকায় এটি প্রায় মাদকসেবীদের দখলে চলে গেছে। এলাকাবাসী জানান, বর্তমানে হাসপাতালটি ঘিরে নানা ধরনের অপকর্ম সংঘটিত হওয়ায় এবং মাদকসেবীদের অবাধ বিচরণের কারণে এলাকার বাসিন্দাদের স্বাভাবিক চলাচল মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। এই হাসপাতাল ভবনটি অরক্ষিত থাকায় আশেপাশের এলাকায় যেখানে-সেখানে সহজেই মাদকদ্রব্য পাওয়া যায়। আর বেকার যুবক কলেজ স্কুল পড়ুয়া ছাত্ররা এখানে মাদকের ভয়াবহ নেশায় জড়িয়ে পড়ছে। এই হাসপাতালটি চালু না হওয়ায় এলাকার হাজার হাজার মানুষ স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। সান্তাহার পৌর শহরে অবস্থিত এই ২০ শয্যা হাসপাতালটির কার্যক্রম দ্রুত চালু করার জন্য এলাকার সচেতন মহল আহ্বান জানান । আরো জানা যায়, হাসপাতাল ভবন উদ্বোধন হলেও এখন পর্যন্ত হস্তান্তর করা হয়নি। ১ জন চিকিৎসকসহ ৬ জন কর্মচারী নিয়োগ দেয়া হলেও ঐ হাসপাতালে চিকিৎসা করানোর কোন পরিবেশ না থাকায় তারা আদমদীঘি উপজেলা হাসপাতালে কাজ করছেন

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: