তারিখ

মঙ্গলবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, বিকাল ৩:২৬, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১২ই সফর, ১৪৪২ হিজরী

রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি–কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারীতে অসামাজিক কাজ, মাদক ব্যবসা, মাদক সেবন, নারী ভাড়া করাসহ নানা অপকর্মে বাধা দেওয়ায় নুরুল আমিন নামের এক ব্যক্তিকে এলোপাতারি পিটিয়ে আহত করেছে মাদক ব্যবাসীয় রাজু আহমেদ। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল রবিবার (১৩সেপ্টেম্বর) দুপুরের দিকে উপজেলার শৌলমারী ইউনিয়নের চেংটাপাড়া গুচ্চু গ্রামে। পরে তার চিৎকার শুনে আশপাশ থেকে লোকজন ছুটে এসে আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে রৌমারী হাসপাতালে ভর্তি করান। এ ঘটনায় নুরুল আমিন বাদি হয়ে রৌমারী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শৌলমারী ইউনিয়নের চেংটাপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে রাজু আহমেদ (৩৫) দীর্ঘদিন থেকে চেংটাপাড়া (গুচ্চুগ্রামে) মাদক ব্যবসা করে আসছে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে মোবাইল ফোনে প্রেম করে অর্থের লোভ দেখিয়ে এবং বিয়ের প্রলোভনে বিভিন্ন কৌশলে বিবাহিত অবিবাহিত সুন্দরী মেয়েদের ডেকে নিয়ে এসে পালাক্রমে ধর্ষণ করে আসছে এই বখাটে রাজু। দীর্ঘদিন থেকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে আসা নারী, মাদক ব্যবসা ও মাদক সেবন করে আসছে ওই গুচ্চুগ্রামে এমন অভিযোগ করেন অনেকেই। দীর্ঘদিনের এ অপকর্মের একাধিকবার ইউপি সদস্য ও গ্রাম্য মাতাব্বদের উপস্থিতিতে সালিশ বিচার হলেও তার দৌরাত্ব থামেনি। তার এই নানা অপকর্মের বাধা দেওয়ায় গত রবিবার একই গ্রামের আজিজুল হক মোক্তারের ছেলে নুরুল আমিনকে কৌশলে অন্য লোক দিয়ে ডেকে নিয়ে তাকে এলোপাথারি মারপিটে আহত করে । সে এখন রৌমারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।
সম্প্রতি গত ৭ সেপ্টেম্বর টাঙ্গাইল থেকে দুই সন্তানের জননীকে মোবাইল ফোনে অর্থের লোভ ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ডেকে নিয়ে এসে ওই গুচ্ছগ্রামে ১৫ নম্বর ঘর মালিক ফাইজুলের ঘরে আটকিয়ে রেখে রাজু মেয়েটিকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় আশপাশের লোকজন জানতে পেরে গ্রাম্য পুলিশ, ইউপি সদস্যসহ মেয়েটিকে উদ্ধার করে শৌলমারী ইউনিয়ন পরিষদ হেফাজতে রাখে। পরদিন রাত আনুমাানিক ৭টায় শৌলমারী ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানের সভাপতিত্বে, ইউপি সদস্য, রাজনৈতিক নেতাকর্মী ও গ্রামবাসির উপস্থিতে সালিশ বৈঠকের সিদ্ধান্ত মোতাবেক মেয়েটিকে তার পরিবার সদস্যের হাতে তুলেদেন। এ অপকর্মের অপরাধে ইউপি চেয়ারম্যান পালিয়ে থাকা রাজুর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনান্তে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করার নির্দেশ দেন গ্রাম পুলিশকে।
এ ঘটনায় জরিত রাজু আহমেদ এর সাথে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে পাশ কাটিয়ে যান।

এ বিষয়ে শৌলমারী ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হাবিল বলেন, অভিযুক্ত রাজুর ব্যাপারে গ্রামবাসি আমার কাছে অনেক অভিযোগ করেছে। আমি তাকে আটক করে থানায় সোপর্দ করার নির্দেশ দিয়েছি।

রৌমারী থানা অফিসার ইনচার্জ হাসান ইনাম বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

বার্তা সম্পাদক

আশিকুর রহমান শ্রাবণ

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: