তারিখ

শনিবার, ১৫ই আগস্ট, ২০২০ ইং, বিকাল ৪:৫৮, ৩১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী

এম আর অভি, বরগুনা প্রতিনিধিঃ- ৮মাস নিখোঁজ বাংলাদেশী নারী শ্রমিক বরগুনার মাসুমা (৩২) কে ফিরে পেতে পরিবারে আকুতি। মাসুমা বেগম (৩২) ৮মাস পূর্বে মেসার্স আলভি ইন্টারন্যাশনাল লিঃ এজেন্সির মাধ্যমে ওমানে গমন করেন। তার পাসপোর্ট নং বিকে-০২২৩৫০২, মালিকের নাম হোসাইন মোহাড সেলিম থাবরিট। সে বরগুনা সদর উপজেলার এম বালীয়াতলী ইউনিয়নের পাতাকাটা গ্রামের মৃত খলিল জোমাদ্দারে কন্যা ও তালতলী উপজেলার ছোট ভাইজোড়া গ্রামের ছগির খানের স্ত্রী। দীর্ঘ আট মাস নিখোঁজ থাকায় তার স্বামী ছগির খান বাদী হয়ে ১জনকে আসামী করে গত ১মার্চ ২০২০ মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে তালতলী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
নিখোঁজ মাসুমার স্বামী ছগির খান প্রতিবেদকে মুঠোফোনে জানান,আমার স্ত্রী মাসুমাকে সদর উপজেলার নলটোনা ইউনিয়নের পদ্মা গ্রামের মৃত্য একুব আলীর পুত্র আলমগীর হাং ফুসলিয়ে-ফাঁসলিয়ে গত ২৯ নভেম্বর-২০১৯,ওমানে পাচার করে। এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে তালতলী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছি। আসামী আলমগীর কিছু দিন জেলে থাকার পর জামিনে বের হয়েছে । আমি আমার স্ত্রীকে পাচারকারীদের হাত থেকে ফেরত পাওয়ার আকুতি জানাই।
বরগুনা জনশক্তি অফিসের জরিপ কর্মকর্তা এম ফকরুল আলম প্রতিবেককে জানান, এ ঘটনায় তালতলী থানায় একটি মামলা হয়েছে। এর প্রেক্ষিতে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই সঞ্জয় কুমার বিশ্বাস লিখিত ভাবে ভিকটিম কোথায় অবস্থান করছে তা জানতে চায়। আমরা জনশক্তি অফিস পাসপোর্ট যাচাই করে নিশ্চিত করেছি যে মাসুমা নামের ঐ নারী শ্রমিক বর্তমানে ওমানে অবস্থান করছে । বিষয়টি লিখিত ভাবে বিধি অনুযায়ী তালতলী থানাকে অবহিত করেছি।
এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তালতলী থানার এস আই সঞ্জয় কুমার বিশ্বাস মুঠোফোন রিসিভ করে কিন্তু গুরত্বর অসুস্থার থাকার কারণে মামলার তদন্তের বিষয়ে কোন তথ্য জানাতে পারেনি।

(Visited 1 times, 1 visits today)

বার্তা সম্পাদক

আশিকুর রহমান শ্রাবণ

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: