তারিখ

শুক্রবার, ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং, ভোর ৫:৩৬, ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

মোঃ আলী হাসান: স্টাফ রিপোর্টারঃ-জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে অরক্ষিত বিদ্যুৎ এর  তারে জরিয়ে প্রাণ গেল কলেজ ছাত্রের। ছাত্রটির নাম  ইমন বসাক (১৮)। এলাকাবাসী বলছে অগভীর নলকূপ মালিক জাহাঙ্গীর আলম রুবেলের  গোয়ারতুমির কারনেই রবিবারের এ দূর্ঘটনাটি ঘটে।এলাকা বাসী ও ভূক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার রসুলপুর গ্রামের প্রভাবশালী মিন অগভীর নলকুপ মালিক জাহাঙ্গীর আলম রুবেল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে তারশ্যালো মেশিনে আবাদি জমিতে সেচকার্য পরিচালনাসহ  পল্লী বিদ্যুতের অনুমোদন ছাড়াই পার্শ্ব সংযোগ হিসেবে অরক্ষিতভাবে ক্ষেতের জমির মধ্যদিয়ে আশপাশের তিনটি পুকুরে  আলোক ব্যবস্থা ও খড়া মৌসুমে পুকুরে পানি সরবরাহ করে আসছিলেন। রবিবার সন্ধ্যায় উপজেলার রসুলপুর গ্রামের  লাকাটি ও বড়দিঘী নামক  স্থানে ওই  অগভীর নলকুপের অরক্ষিত তারে জরিয়ে ইমন বসাক নামের এক ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। দূর্ঘটনায় নিহত ইমন  বসাক ক্ষেতলাল সরকারি ডিগ্রি কলেজের উচ্চমাধ্যমিক প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিল।
ঘটনার দিন ইমন বসাক পিতা মনমত বসাককে সাহায্য করতে জমির ক্ষেতে যায়। জমিচাষ  শেষ হলে  পিতাকে একটু অবসর দিতে নিজেই পাওয়ার টিলারে চেপে বসে অন্য জমিতে পাওয়ার টিলার সরিয়ে নেওয়ার সময় বিপদজনক অরক্ষিত ওই তারে জড়িয়ে ঘটনার স্থলে প্রাণ হারান ইমন বসাক। মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে এবং অগভীর নলকূপ মালিক এর প্রতি বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে জনতা। পরে পুলিশ প্রশাসন ঘটনার স্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।
 এর আগে ঘটনাস্থলে মৃত্যু হলেও বেঁচে থাকার অনুমানে নিহত ইমনকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে এলাকাবাসী । স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার পূর্বেই তার মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন।
তার বাবা মনমত বসাক কান্নাজরিত কন্ঠে বলেন, আমরা বহুবার অগভীর নলকুপ মালিক জাহাঙ্গীর আলম রুবেল হোসেন তার অরক্ষিত তার সড়িয়ে নিতে বলেছিলাম। কিন্তু তার গোয়ারতমির কারণে আজ আমার কলেজ পড়–য়া ছেলের লাশ দেখতে হলো।
মামুদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান শামীম বলেন, অসাবধানতাবসতঃ কলেজ  ছাত্রের অনাকাঙ্ক্ষিত এ মৃত্যু  ঘটেছে যা কেউ প্রত্যাশা করে না।ক্ষেতলাল থানা (ওসি তদন্ত) আবু রায়হান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, শ্যলো মেশিনের বৈদ্যতিক তারে জড়িয়ে ওই কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শ্যালো মেশিন মালিক জাহাঙ্গীর আলম রুবেলকে আসামী করে নিহতের পিতা মনমত বসাক বাদী হয়ে একটি নিয়মিত মামলা গ্রহণ করেছে। নিহত ইমন বসাকের লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। আসামী পলাতক রয়েছে।জয়পুরহাট-০২এলাকার  পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরিচালক মাহমুদুল হাসান চৌধুরী রকেট বলেন, পার্শ্ব সংযোগ বিষয়ে  সেচ মালিকদের একাধিক বার এলাকায় মাইকিং করে সতর্ক করা হয়েছে। এরপরেও কোন গ্রাহক পুনরায় এ ঘটনা ঘটালে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে  এবং তার দায়দায়িত্ব তাকেই বহন করতে হবে।
এবিষয়ে গভীর নলকুপ মালিক জাহাঙ্গীর আলম রুবেল হোসেনকে তার ব্যক্তিগত মোবাইর ফোনে বারবার যোগাযোগ করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
(Visited 1 times, 1 visits today)

বার্তা সম্পাদক

আশিকুর রহমান শ্রাবণ

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: