আশিকুর রহমান শ্রাবণ বিশেষ প্রতিনিধি- ময়মনসিংহের ভালুকায় এক মাদরাসা ছাত্রীকে মুখ বেঁধে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটে গত শনিবার (১৪ মার্চ) সন্ধ্যায়। তিন দিন হাসপাতালে অচেতন থাকার পর গত সোমবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যায় জ্ঞান ফেরে মেয়েটির। জ্ঞান ফেরার পর ঘটনার বর্ণনা দেয় তার স্বজনদের কাছে।
এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার গোয়ারী দারুছুন্নাহ দাখিল মাদরাসার নবম শ্রেণীর ওই ছাত্রীকে গত শনিবার সন্ধ্যায় প্রতিবেশী প্রবাসী জালাল উদ্দিনের ছেলে কবির হোসেন তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে মেয়েটি অচেতন হয়ে পড়লে তার গলায় ওড়না পেঁচিয়ে বাড়ির পাশে নারিন্দি খালের ব্রীজের কাছে ফেলে রেখে যায়।
পরে সন্ধার দিকে ওই এলাকার আছমত আলীর ছেলে মোখলেছুর রহমান রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় মেয়েটির গংড়ামির শব্দ শুনতে পেয়ে এক দোকানদারকে জানান। পরে দোকানে উপস্থিত লোকজন গিয়ে মেয়েটিকে আহত অবস্থায় পেয়ে মেয়েটির বাড়িতে খবর দিলে স্বজনরা এসে অচেতন অবস্থায় মেয়েটিকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। কর্মরত ডাক্তার মেয়েটির অবস্থায় বেগতিক দেখে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (মমেক) প্রেরণ করেন। মেয়েটির বাবা জানান, আমরা কিছুই বুঝতে পারিনি আমার মেয়ে জ্ঞান ফেরার পর ঘটনার বর্ণনা দেয়।
ভালুকা মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, ওই ঘটনায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করা হয়েছে, আসামিকে ধরার চেষ্টা চলছে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: