জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ-সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলার খারুবিল গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরুদের জের ধরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলায় আহত হয়েছে ২ জন । এঘটনায় মুক্তিযোদ্ধার ছেলে শফাত হুসেন বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে।
অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলার খারুবিল গ্রামে ১০ ফেব্রুয়ারী এ ঘটনা ঘটে। জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে প্রতিপক্ষের সাথে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। ঘর মেরামত‘র জন্য বসত বাড়ীর পূর্ব পাশ হতে মুক্তিযোদ্ধার ছেলে আলী আহমদের স্ত্রী ২টুকরি মাটি নিয়ে আসাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ খারুবিল গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে মাহবুব হুসেন (৪০), জাকারিয়া (৩৮), কিবরিয়া (৩২), ইয়াহিয়া (২৮), নোমান (২২), একই গ্রামের মৃত তবারক আলীর ছেলে বশির আহমদ (৫৫) এবং বিরাইমারা গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে নিজাম উদ্দিন (৪৮) গংরা দলবদ্ধ হয়ে মুক্তিযোদ্ধার পরিবার‘র উপর হামলা চালায়। গুরুত্বর আহত হওয়ার পরও হামলাকারীরা শান্ত হয়নি, প্রাণে মারার লক্ষ্যে দেশিয় অস্ত্র শাবল সুলফি দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে। বাড়ীর শিশু মহিলাদের আত্মচিৎকারে স্থানীয় এলাকাবাসী দ্রুত এগিয়ে এসে হামলাকারীদের কবল হতে আহতবস্থায় বীর মুক্তিযোদ্ধা ছইদ আলী ও তার ছেলে আলী আহমদকে উদ্ধার করে জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে।
এ দিকে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দুজনের অবস্থা বেগতিক দেখে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দ্রুত সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। বর্তমানে আলী আহমদ কিছুটা সুস্থ হলেও বীর মুক্তিযোদ্ধা ছইদ আলী এখন সঙ্গাহীন রয়েছে। ১১ ফেব্রুয়ারী মুক্তিযোদ্ধার ছেলে শফাত হুসেন বাদী হয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানায় মামলা দায়ের করে যাহার নং-০৫, তারিখ: ১১-০২-২০২০।
মুক্তিযোদ্ধা পরিবার‘র উপর হামলার ঘটনায় প্রতিবাদ ও তীব্র নিন্ধা জানিয়েছেন জৈন্তাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ড ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্ধরা। তারা আরোও বলেন এই ধরনের নেক্কার জনক হামলার ঘটনায় সুষ্ট বিচার না পেলে উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের পক্ষে তীব্র আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে।
জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক প্রতিবেদককে বলেন, আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রাথমিক ভাবে তদন্তপূর্বক অভিযোগটি মামলা হিসাবে রেকর্ড করেছি এবং আসামীদের গ্রেফতার করতে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: