পঞ্চগড় প্রতিনিধি –২০১৫ সালের ১ আগস্ট বাংলাদেশ-ভারত স্থল সীমান্ত চুক্তির মাধ্যমে ছিটমহলগুলো দীর্ঘ ৬৮ বছর পর বন্দিদশা থেকে মুক্ত হয় সাবেক ছিটমহল বাসিরা। তাই ছিটমহল বিনিময়ের এই দিনটিকে ‘ছিটমহলের স্বাধীনতা দিবস কিংবা ছিটমহল বিনিময় দিবস নামে জাতীয় দিবস হিসেবে অন্তর্ভূক্ত করার দাবি জানিয়েছেন। পঞ্চগড়ের বিলুপ্ত ৩৬ টি ছিটমহলের বাসিন্দারা। বুধবার দুপুরে বিলুপ্ত ছিটমহলের সহ¯্রাধিক নতুন বাংলাদেশী পঞ্চগড় জেলা শহরের শের-ই-বাংলা পার্ক থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। পরে বিলুপ্ত ছিটমহলের নেতারা ছিটমহল বিনিময়ের দিনটিকে ছিটমহল বিনিময় দিবস ঘোষানা করার দাবিসহ বিলুপ্ত বিলুপ্ত ছিটমহলে গড়ে উঠা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো এনটিআরসিএ’র শর্ত শিথিত করে এমপিওভুক্ত করণের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করেন। স্মারকলিপি গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: