খোরশেদ আলম,কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি-গাজীপুরের কালিয়াকৈরে হরিনহাটি এলাকায় সোমবার ভোরে রহিম মন্ডল (২৭) নামের এক যুবককে হাত-পা বাধাঁ অবস্থায় বস্তার ভেতর থেকে উদ্ধার করেছে কালিয়াকৈর থানা পুলিশ উন্নত চিকিৎসার জন্য গাজীপুর শহীদ তাইজুদ্দিন মেডিকেলে প্রেরণ করেন। সোমবার সকাল ভোরে উপজেলার হাফিজুর রহমান (হাফন) এর বাসা সংলগ্ন রাস্তা থেকে মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। আহত হলেন,উপজেলার সাদুল্লাপুরের শ্রীফলাকাঠি গ্রামের রাজ্জাক মন্ডলের ছেলে রহিম মন্ডল (২৭)সে দক্ষিন হরিনহাটি এলাকায় আসাদুল্লাহ বাবুর বাসায় তার বোনের সাথে একটি টিনসেট ঘড়ে ভাড়া থেকে এলাকায় রিক্সা চালাত।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সোমবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে হরিণহাটি এলাকায় রাস্তায় মাঝে রক্তমাখা একটি বস্তা দেখতে পায় এলাকাবাসী। পরে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে বস্তার ভেতর থেকে হাতা-পা বাধাঁ গুরুতর আহত অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।আহত রহিম মন্ডল জানান, রোববার রাত অনুমান পৌনে ১০টার দিকে সে প্রতিদিনের মত রিক্সা চালিয়ে বাড়ি ফিরছিল। এসময় পথে মধ্যে মুরগি বিক্রেতা আলীর ছেলে মোঃ আরাফাত হোসেন (২৪) প্রথমে তার গতিপথ রোধ করে, পরে আলী ফকির এবং একই এলাকার একাধিক মামলার আসামী মোঃ হানিফ (২৮), তুষার ওরফে ছোটন (২০), রুবেল ওরফে লম্বা রুবেল (২৭), আকাশ, সজীব ও আবিরসহ আরো অজ্ঞাত ১০ থেকে ১২ জন মিলে রাত ১০ টা থেকে সোমবার ভোর ৫ টা পর্যন্ত তার হাত-পা বেধেঁ সারা রাত কোন এক জায়গায় আটক রেখে পিটিয়ে এবং দু পায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক ভাবে ক্ষত বিক্ষত করে। তবে হাত-পা ও চোখ বেধেঁ তাকে কোথায় আটক রেখে নির্যাতন করা হয়েছে সে এ বিষয়ে কিছু জানাতে পারেনি।
কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, এলাকাবাসীর ফোন পেয়ে পুলিশ দ্রুত ঘটনা স্থলে পৌছে এবং গুরুতর আহত অবস্থায় বস্তার ভেতর হাত-পা বাঁধা ওই যুবককে উদ্ধার করে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। পরে তাকে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়। ওই হাসপাতালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজ উদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
তিনি আরও জানান, প্রাথমিক ভাবে আহতের নিকট থেকে ঘটনার কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। সে সুস্থ্য হলে ঘটনার পূর্ণতথ্য পাওয়া যাবে। এছাড়া ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ হয়নি। তবে এব্যাপারে তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এবিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: