উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি: রোববার (২৪ মার্চ) ২৭৪: নড়াইলের তিনটি উপজেলায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহন শুরু হয়েছে। রোববার (২৪ মার্চ) সকাল ৮টা থেকে জেলার তিনটি উপজেলার মোট ২৪৩ টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহন শুরু হয়েছে। তবে ভোটারে উপস্থিতি তেমন লক্ষ করা যায়নি। বেলা ১১টা পর্যন্ত নড়াইল সদরের তুলারামপু পুরুষ ও মহিলা কেন্দ্র, গাবগলা, বলমিতনাসহ ৭ টি কেন্দ্রে ঘুরে দেখা গেছে কোন কেন্দ্রেই ৫ শতাংশের বেশি ভোট পড়েনি। কয়েকটি বুথে হাতে গোনা ৫-১০টি ভোটও পড়েছে। নাম প্রকাশ না করা শর্তে কেন্দ্রের দ্বায়িত্বে থাকা নির্বাচন কর্মকর্তারা বলছেন বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি বাড়তে পারে। সকাল থেকে ভোটারে উপস্থিতি কিছুটা কম হলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটারের সংখ্যা বাড়ছে। নড়াইল জেলার ৩ টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ১৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষপদে ২৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বী করছেন। জেলায় মোট ভোটার রয়েছে ৫ লক্ষ ৫৬ হাজার ৪৩ জন এর মধ্যে পুরুষ ২ লক্ষ ৭৬ হাজার ১’শ ৪১ জন এবং মহিলা ২ লক্ষ ৭৯ হাজার ৯’শ ২ জন। শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহনের জন্য ১৮জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ১৮ প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), র‌্যাব, আট শতাধিক পুলিশ ও আনসার সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছেন। এ ব্যাপাওে নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, পিপিএম (বার), নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি উজ্জ্বল রায়কে জানান, বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী এবারের উপজেলা নির্বাচনে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের লক্ষে একজন অতিরিক্ত ডিআইজি নিয়োজিত থাকবেন। সেই সাথে প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্রে পুলিশ, আনসারসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করবেন। কোথাও কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা ঘটলে ডিআইজির নির্দেশক্রমে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অপরদিকে নড়াইলের তিনটি উপজেলাতেই চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে মাঠে আছেন দলীয় বিদ্রোহী প্রার্থীরা। ভাইস চেয়ারম্যান পদেও আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের একাধিক প্রার্থী মাঠে আছেন। এর মধ্যে নড়াইল সদর উপজেলায় নৌকা প্রতীকে লড়ছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দীন খান নিলু। বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে আছেন নড়াইল পৌর যুবলীগের আহবায়ক বিপ্লব বিশ্বাস বিলো (স্বতন্ত্র)। জাতীয় পার্টির (এরশাদ) প্রার্থী মিলন কুমার মল্লিক ও এনপিপির (ছালু) নুরুল ইসলামও মাঠে আছেন। এ উপজেলাতে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পাশাপাশি মাঠ সরগরম করে রেখেছেন পুরুষ ও নারী ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থীরাও। লোহাগড়া উপজেলায় নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য রাশিদুল বাসার ডলার, বিদ্রোহী প্রার্থী লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিকদার আব্দুল হান্নান রুনু (আনারস) ও অপর বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফয়জুল আমির লিটু (মোটরসাইকেল)। এছাড়াও মাঠে আছেন সদ্য বহিষ্কৃত লোহাগড়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান ও আম প্রতীকে এনপিপির (ছালু) প্রার্থী মারুফ মোল্যা। এদিকে মাঠে আছেন নয় পুরুষ ও ছয় নারী ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী। কালিয়া উপজেলাতে চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী হলেও মূলত প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণপদ ঘোষ ও বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এস এম হারুনার রশিদের মধ্যে। এছাড়া আম প্রতীকে এনপিপি (ছালু) প্রার্থী নুর আলম মাঠে থাকলেও দলীয় প্রার্থীর প্রতি সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী প্রার্থী খান শামীম রহমান। এ উপজেলাতে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পাশাপাশি মাঠ সরগরম করে রেখেছেন সাত পুরুষ ভাইস-চেয়ারম্যান ও পাঁচ নারী প্রার্থী। প্রার্থীরা বিজয়ী হলে উন্নত উপজেলা গড়ার স্বপ্ন দেখেন। এদিকে সৎ ও যোগ্য প্রার্থীকে বিজয়ী করতে চান নড়াইল সদর, লোহাগড়া ও কালিয়া উপজেলাবাসী।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: