উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি■ নড়াইলের নবগঙ্গা নদীর চর দখলের প্রতিযোগিতা শুকনো খালে পরিণত হয়েছে এক সময়ের খরস্রোতা নদী নবগঙ্গা। নদীর এখানে সেখানে জেগে ওঠা অসংখ্য চরে অবাদে চলছে দখলদারি। এসব চরে ধান লাগিয়ে জমি দখলের প্রতিযোগিতায় নেমেছে স্থানীয়রা।
নড়াইলের রাজুপুরের আমির উদ্দিন বলেন, নাব্যতা সংকটে বানকানা নদীর মতো নবগঙ্গাও আজ অস্তিত্ব হারাচ্ছে। কয়েক বছর আগের সেই জৌলুস আর নেই। নড়াইলের কুন্দশী থেকে মহাজন পর্যন্ত নদীটির প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকা চলে গেছে দখলদারদের আয়ত্বে। বাঁধ দিয়ে, ধান লাগিয়ে নদীর চর দখল করছে কিছু মানুষ।
মৃত প্রায় নড়াইলের নবগঙ্গা নদীর নাব্যতা ফিরিয়ে আনতে ২০১১-১২ অর্থবছরে ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে মল্লিকপুর থেকে মহাজন পর্যন্ত খনন করলেও তা কোন কাজে আসেনি। বর্ষা মৌসূমে পলি জমে নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে গেছে।
নড়াইলের লোহাগড়া পৌরসভা মেয়র মো. আশরাফুল আলম, আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়কে জানান, নদী শাসন আইন নবগঙ্গার জন্য কার্যকর না। যতই খনন করা হোক, পলি মাটি আসা রোধ করা যায়নি।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: