শ্রীপুর গাজীপুর প্রতিনিধি আব্দুর রহিম-গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের তৃতীয় শ্রেণি পড়ুয়া এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে শহীদ মিয়া (৪২) নামের এক ব্যক্তি।সে ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার পাড়াগাঁও  গ্রামের আব্দুল আলিমের ছেলে। শহিদ মিয়া বর্তমানে উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামের কদম আলীর বাড়িতে ঘর জামাই হিসেবে বসবাস করছেন স্ত্রী সন্তান নিয়ে। কদম আলী শহিদ মিয়ার শশুর। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীর (৯) বাবার বাড়ি শেরপুর জেলার নখলা উপজেলার পাইসকা গ্রামে। বাবা একাধিক বিয়ে করায় তাদের খোঁজ খবর রাখে না সেজন্য বর্তমানে ছাত্রী তার পরিবার সহ শ্রীপুর উপজেলার নয়াপাড়া গ্রামে নানা জাবেদ আলী (ওরফে জদু) মিয়ার বাড়িতে বসবাস করে।
ওই ছাত্রীর মা জানান, আমি রাজমিস্ত্রীর কাজ করি। আমার মেয়ে বাড়িতে একা থাকে। এই সুযোগে লম্পট শহিদ আমার মেয়েকে তার নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে।
ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর স্বজনরা জানায়, গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার নয়পাড়া এলাকায় জাবেদ আলী (ওরফে জদু) মিয়ার দেয়া জমিতে ঘর নির্মাণ করে সন্তান নিয়ে বসবাস করে আসছে তার দরিদ্র মা।  শিশু মেয়ে (৯) নানার বাড়িতে থেকে পড়া লেখা করে, সে স্থানীয় নয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রী।
ওই মেয়ে বলেন, নতুন জামা দেওয়ার কথা বলে ঘরে ডেকে নিয়ে যাই তারপর ঘরের দরজা বন্ধ করে এবং আমাকে ভয় দেখিয়ে বলে কান্নাকাটি করলে আমাকে মেরে ফেলবে। দুলাভাই আমাকে একাধিকবার বিভিন্ন সময়ে ধর্ষণ করেছে। এতে আমি প্রায় সময় অসুস্থ্য হয়ে যাই স্কুলে যেতে পারিনি। ঘটনাটি দুই সপ্তাহ পূর্বে ঘটেছে। কিন্তু মেয়েটি ব্যাথা সহ্য করতে না পারায় (১৫ জানুয়ারি) প্রকাশ পায় । পরে মেয়েটির পরিবার বিষয়টি মেয়ের কাছ থেকে বিস্তারিত জানতে পারে। পরে ওই মেয়েকে নিয়ে তার পরিবার স্থানীয় মাওনা আল-হেরা হাসপাতালে নিয়ে গেলে ধর্ষণের বিষয়টি নিশ্চিত হতে পারে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষণকারি শহিদ মিয়া পলাতক রয়েছে।
এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানায় ১৬ জানুয়ারি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ধর্ষিতার ভাই‌।
শ্রীপুর মডেল থানার (ওসি) অপারেশন আবুল কালাম ভুঞা বলেন, অভিযোগ পেয়েছি ঘটনার সত্যতা প্রমাণ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: