রাজীবপুর(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধি
সীমান্তবর্তী দুই জেলা কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট এর যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ ও দ্রুত করার জন্য নির্মিত দ্বিতীয় ধরলা সেতু জনসাধারণের চলাচলের জন্য জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।দুই জেলার মানুষের সুবিধার কথা চিন্তা করে আজ শনিবার সেতুটি খুলে দেয়া হয়। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আনুষ্ঠানিকভাবে সেতুটি উদ্বোধন করবেন।

বিকেলে সেতুটি খুলে দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন কুগিড়গ্রাম জলা প্রশাসক সুলতানা পারভীন, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলী, পুলিশ সুপার মেহেদুল করিম, ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেবেন্দ্রনাথ উঁরাও, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আমিনুল ইসলাম মঞ্জু মন্ডল, সিভিল সার্জন ডা. এসএম আমিনুল ইসলাম, নির্বাহী প্রকৌশলী সৈয়দ আব্দুল আজিজ, কুড়িগ্রাম প্রেসক্লাবের সভাপতি আহসান হাবীব নীলু, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা অধ্যক্ষ রাশেদুজ্জামান বাবু, প্রমুখ।

আসন্ন বর্ষা মৌসুম ও নদীর পানি বৃদ্ধি শুরু হওয়ায় নৌকা দিয়ে নদী পারাপারে জনসাধারণের ভোগান্তির কথা বিবেচনা করে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার স্থাপিত দ্বিতীয় ধরলা সেতুটি সাময়িকভাবে খুলে দেওয়া হয়েছে।

এলজিইডি’ সূত্রে জানা গেছে দ্বিতীয় ধরলা সেতুর নির্মাণ কাজ বাস্তবায়নে সিমপ্লেক্সে ও নাভানা কনস্ট্রাকশন গ্রুপের সাথে চুক্তি সম্পাদিত হয় ২০১২ সালে। সেতুটি নির্মানে এলজিইডি ১৩ একর জমি অধিগ্রহন করে। নির্মাণে ব্যয় হয় ১৯১কোটি ৬৩ লাখ ২২৩ টাকা।

৯৫০ মিটার দীর্ঘ ও ৩২ মিটার চওড়া সেতুটিতে ১৯টি স্প্যান এবং ৯৫টি গার্ডার রয়েছে। এছাড়া পূর্ব পশ্চিম অংশে ২ হাজার ৮৭২ মিটার এপ্রোচ সড়কের কাজও সম্পন্ন করা হয়ছে। এই সেতুটি জেলার প্রায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষের যোগাযোগ ও ব্যাবসায়ীক ভাবে পরিবর্তন আনবে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

সম্পাদক ও প্রকাশক

কাজী জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

ই-মেইল: jahangirbhaluka@gmail.com
নিউজ: bsomoy71@gmail.com

মোবাইল: ০১৭১৬৯০৭৯৮৪

%d bloggers like this: